মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ০৭:৫৮ পূর্বাহ্ন

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী যা বললেন

অনলাইন ডেস্ক:
  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৮ মার্চ, ২০২১
  • ২৪ সময় দর্শন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, করোনার মহামারির এই প্রাদুর্ভাব কেটে গেলে তখনই স্কুল খুলে দেওয়া হবে। ছোট্ট সোনামনিরা, তোমরা ঘরে বসে পড়াশোনা কর এবং সেই সঙ্গে খেলাধুলাও করবে। আমরা এটাই চাই যে খেলাধুলা, সংস্কৃতি চর্চা এগুলো একান্তভাবে অপরিহার্য।

‘তোমরাই তো দেশের ভবিষ্যত। তোমরাই এদেশকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাবে। করোনার এই প্রাদুর্ভাব কেটে যাবে। স্কুল আমরা তখনই খুলে দেব। তোমরা স্কুলে যেতে পারবে। সেই সঙ্গে সঙ্গে খেলাধুলাও তোমরা করতে পারবে এবং এখনো করতে পার।’

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে বুধবার টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধু সমাধি স্মৃতি কমপ্লেক্সে আয়োজিত শিশু-কিশোর সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী এ আহ্বান জানান। এ সময় প্রধানমন্ত্রী উন্নত ভবিষ্যতের জন্য সন্ত্রাস-মাদক, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ থেকে শিশুদের দূরে রেখে তাদের জীবনকে আলোকিত ও সুন্দর হিসেবে গড়ে তোলার প্রতি গুরুত্বারোপ করেন।

শিশু-কিশোরদের উদ্দেশে তিনি বলেন, সব সময় যে কোনো অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা এবং সেই সঙ্গে সঙ্গে ন্যায় ও সত্যের পথে চলতে হবে। তাহলেই জীবনে বড় হতে পারবে। জীবনটাকে উন্নত করতে পারবে। বাবা-মা তাদের মুখও উজ্জ্বল হবে।

পড়ালেখা ও নৈতিক চর্চার মাধ্যমে নিজেদের ‘যোগ্য’ হিসেবে গড়ে তোলার জন্যও শিশু-কিশোরদের প্রতি আহ্বান জানান বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমি ছোট্ট সোনামনি তোমাদের কাছে এটাই চাই, তোমরা তোমাদের জীবনটাকে সুন্দর কর, লেখাপড়া শেখ। সেই সঙ্গে সঙ্গে তোমাদের দরকার হচ্ছে নিয়ম শৃঙ্খলা মানা, অভিভাবকদের কথা শোনা, শিক্ষকদের কথা শোনা, শিক্ষকদের কথা মেনে চলা, এটা কিন্তু খুব দরকার।

শিশুদের জীবনকে সুন্দর ও রঙিন করে গড়ে তুলতে সরকার কাজ করছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ছোট শিশুদের জীবন আরও রঙিন, আরও সুন্দর, আরও সার্থক করে গড়ে তুলতে চাই। সেটাই আমাদের লক্ষ্য। আমি এটাই চাই, আজকের শিশুরা সুন্দরভাবে গড়ে উঠবে, জীবনটাকে সুন্দর করবে।

ধীরে ধীরে যখন দেশের করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ কমতে শুরু করেছিল, সেই আশার মধ্যে আবার আক্রান্ত বাড়তে শুরু করেছে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সর্বশেষ পরিস্থিতি জানাতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে শুক্রবার জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৬৬ জনের মধ্যে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। সে হিসেবে বর্তমানে সংক্রমণের হার ফের দৈনিক ৬ শতাংশ ছাড়িয়ে গেছে।

এ প্রেক্ষিতে গত ১২ মার্চ সাংবাদিকদের শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার তারিখ পেছাতে পারে। সেদিন রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে এক সংবাদ সম্মেলন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, করোনা সংক্রমণের চলমান ঊর্ধ্বগতি অব্যাহত থাকলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ব্যাপারে পর্যবেক্ষণের ভিত্তিতে জাতীয় পরামর্শক কমিটির সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে সরকার সিদ্ধান্ত নেবে। সরকার বিবেচনা করবে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ৩০ মার্চ খুলবে নাকি পেছাবে। যদি পরিবর্তন হয় তাহলে জানানো হবে।

এর আগে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ৩০ মার্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ঘোষণা দেন।

দেশে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয় গত বছরের ৮ মার্চ।  প্রথম মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ। গত বছরের ১৭ মার্চ সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। এখন পর্যন্ত সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। সর্বশেষ গত ২৮ ফেব্রুয়ারি দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আগামী ২৯ মার্চ পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করে আদেশ জারি করে সরকার।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
২০২০© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ*
ডিজাইন - রায়তা-হোস্ট সহযোগিতায় : SmartiTHost
smartit-ddnnewsbd