শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৯:২৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ভাঙ্গুড়ায় ইউএনও’র ভাষা চর্চা ক্লাবে শিক্ষার্থীদের উপচে পড়া ভিড়! ভাঙ্গুড়ায় গ্রাহকের সঞ্চয়ের টাকা নিয়ে উধাও এনজিও সরকারি ভাঙ্গুড়া ইউনিয়ন স্কুলে ভর্তি অনিয়ম ! ভুগছেন শিক্ষার্থী-অভিভাবক! অধ্যক্ষকে শোকজ ডোনাল্ড লুর হাই প্রোফাইল সফর- অংশগ্রহণমূলক আগামী সংসদ নির্বাচন দেখতে চায় যুক্তরাষ্ট্র দেশের উন্নয়নে দিশেহারা হয়ে বিএনপি আবোল তাবল বকছে,খালেদা জিয়ার কথায় দেশ চলবে এটা বিএনপির দু:স্বপ্ন – এমপি মকবুল ভাঙ্গুড়ায় তীব্র শীতে এক কৃষকের মৃত্যু আজ ১০০ মহাসড়ক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী প্রার্থিতা জমা নেয়ার পর হঠাৎ নির্বাচন বন্ধ করে দিলেন প্রধান শিক্ষক বিএনপির সংসদ সদস্যরা জমা দিলেন পদত্যাগপত্র ভাঙ্গুড়ায় মেয়াদোত্তীর্ণ কোভিড-১৯ টিকা পুশ নিয়ে জটিলতা! অধিদপ্তরের মেয়াদ বৃদ্ধি

শেখ হাসিনার প্রতিটি দিন, প্রতিটি মুহূর্ত ঘটনাবহুল ; জুনায়েদ আহমেদ পলক

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
  • আপডেটের সময় : রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২৪৩ সময় দর্শন
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন যেমন ঘটনাবহুল ছিল ঠিক একইভাবে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জীবনের প্রতিটি দিন, প্রতিটি মুহূর্তই ঘটনাবহুল বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর প্রতিটা মুহূর্তই ইতিহাসের অংশ। শুক্রবার বেলা ১১টায় রাজধানীর ধানমন্ডির রবীন্দ্র সরোবরে প্রধানমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী। যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর যেমন ঘটনাবহুল জীবন ছিল, তেমনি বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শৈশব, কৈশোর, তারুণ্য এবং তার রাজনৈতিক জীবন, বিরোধী দলের নেতা হিসেবে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার প্রতিটি দিনই, প্রতিটি মুহূর্তই ঘটনাবহুল। এই প্রত্যেকটি ছবির মধ্যে লুকিয়ে আছে একেকটি ইতিহাস। আমি বলবো যে এই প্রত্যেকটা ছবি এক একটি ইতিহাসের অংশ।
ছবি প্রদর্শনীর এ উদ্যোদের প্রশংসা করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমি মনে করি বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশের জন্য এবং এই জাতির জন্য অসামান্য অবদান রেখেছেন। এই চিত্র প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে আমাদের বর্তমান এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে অনেক অজানা ইতিহাস জানানো সম্ভব হবে।তাদেরকে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশের জন্য কাজ করার জন্য অনুপ্রাণিত করবে।’ বিশ্ব নেতাদের মধ্যে শেখ হাসিনার পার্থক্য তুলে ধরে জুনায়েদ আহমেদ পলক বলেন, ‘একটু লক্ষ্য করতে হবে- বিশ্বের ইতিহাসে কিন্তু অনেক রাজনৈতিক নেতা আছেন। যারা সফল রাষ্ট্রনায়ক, সফল সরকারপ্রধান। কিন্তু ব্যক্তি জীবনে একজন আদর্শ সন্তান হওয়া কিংবা মমতাময়ী মা হওয়া বা দূরদর্শী নেতা হওয়া, সবার মধ্যে সেই গুনগুলি থাকে না। কিন্তু জননেত্রী শেখ হাসিনার মধ্যেই এই সবগুলো গুনই বিদ্যমান। তিনি একদিকে যেমন সাহসী, দূরদর্শী অপরদিকে মমতাময়ী মা। আবার একজন আদর্শ সন্তান। আজকের চিত্রপ্রদর্শনী যে উদ্যোগ নিয়েছে ‘গৌরব ৭১’। এটা অত্যন্ত প্রশংসনীয় এবং আমাদের তরুণ প্রজন্মের সকলকে অনুরোধ করবো তারা জানিয়েছে এই চিত্র প্রদর্শনী বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার সংগ্রামী জীবন সেখান থেকে তারা অনুপ্রেরণায় নেয়।‘ শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে ‘প্রজন্মের প্রার্থনা—শতায়ু হোক শেখ হাসিনা’ শীর্ষক চিত্র প্রদর্শনীতে জায়গা পেয়েছে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতির শৈশব, কৈশোর, ব্যক্তি এবং রাজনৈতিক জীবনের ৭৪টি ছবি।
এরমধ্যে অনেক ছবিই দুর্লভ। শুক্রবার সকাল থেকে শুরু হওয়া এ চিত্র প্রদর্শনী চলবে তিন দিন। চিত্র প্রদর্শন শেষে সাবেক বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক বলেন, ‘আমি আয়োজকদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। যারা এই দুর্লভ ছবিগুলো এখানে প্রদর্শন করতে পেরেছেন। ছবিগুলো সত্যি দুর্লভ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছোটবেলা থেকে শুরু করে সেই ছবিগুলো কিভাবে জোগাড় করেছেন সেটা সত্যি এটা প্রশ্ন। নিঃসন্দেহে আমি তাদেরকে স্বাগত জানাতে চাই। এই ছবি থেকে বর্তমান প্রজন্ম এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মের অনেক কিছু শেখার আছে।‘ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ও ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর বলেন, ‘শেখ হাসিনার জন্যই আজ বাংলাদেশ ডিজিটাল বাংলাদেশে রূপান্তরিত হয়েছে, আজ পৃথিবীর দ্বিতীয় খড়স্রোত নদী- পদ্মা নদী।
সে নদীতে পদ্মা সেতু নির্মাণ হচ্ছে। আমরা আমাদের সক্ষমতার পরিচয় দিয়েছি। মেট্রোরেলসহ অনেক বড় বড় অবকাঠামো তৈরি করে আমরা আমাদের সক্ষমতার পরিচয় দিয়েছি। এই হচ্ছে শেখ হাসিনা। আজ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে, তার পেছনে তার সন্তান সজীব ওয়াজেদ জয়ের নেতৃত্বে ডিজিটাল বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে। চিত্র প্রদর্শনী উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কার্য নির্বাহী সংসদের সদস্য অ্যাড. সানজিদা খানম, বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এমরান কবির চৌধুরী, দৈনিক সময়ের আলো’র নির্বাহী সম্পাদক শাহনেওয়াজ দুলাল, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সাবেক সভাপতি মাহমুদ হাসান রিপনসহ প্রজন্ম ৭১ এর বিভিন্ন পর্যায়ের ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর
২০২০© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ*
ডিজাইন - রায়তা-হোস্ট সহযোগিতায় : SmartiTHost
smartit-ddnnewsbd