বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:১৩ পূর্বাহ্ন

উল্লাপাড়ায় দাদার ইচ্ছে পূরণ করতে হাতিতে চরে নাতির বিয়ে

প্রতিবেদকের নাম :
  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১২১ সময় দর্শন

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ বর সেজে হাতিতে চরে কনের বাড়িতে গিয়ে বিয়ে করে  দাদার ইচ্ছে পূরণ করলেন নাতি মোতালেব।  উপজেলার চালা গ্রামের আবুল কালামের ছেলে মোতালেব হোসেন। তিনি একজন সরকারি কর্মচারী। ঢাকায় কর্মরত। বৃহস্পতিবার তিনি বর বেশে হাতিতে চড়ে চার কিলোমিটার দূরবর্তী একই উপজেলার খালিয়াপাড়া গ্রামে যান বিয়ে করতে। ওই গ্রামের সাইদুর রহমানের মেয়ে রেহানাকে বিয়ে করেন তিনি। নয়া বউ ভয়ে পেয়ে হাতি চড়তে পারেনি তাই মোতালেব বউ নিয়ে ফেরেন প্রাইভেট কারে।

বর মোতালেব হোসেন জানান, তার দাদা রহমত আলীর শখ ছিল নাতি হাতিতে চড়ে বিয়ে করতে যাবেন। সঙ্গে যাবেন তিনি। অনেকদিন নাতিকে এ কথা বলেছেন দাদা। কিন্তু কিছুদিন আগে দাদা রহমত মারা যান। বিয়ে ঠিক হবার পর মোতালেব বৃহস্পতিবার তার দাদার শখ পূরণ করতে ভাড়া করা হাতিতে করেই কণের বাড়িতে যান। বর যাত্রীরা যান মোটর যানে।

স্থানীয়রা জানান, চালা থেকে হাতিতে বর রওনা হবার সময় গ্রাম ও পার্শ্ববর্তী এলাকার অনেক কৌতুহলী নারী-পুরুষ সেখানে ভীড় জমায়। আবার খালিয়াপাড়া গ্রামে বর বরণ করার সময় সেখানেও ভীড় করে অনেক মানুষ। আর এ নিয়ে আনন্দে মেতে উঠেন বরযাত্রীরা। পুরো রাস্তায় অনেক লোকজন পাশে দাঁড়িয়ে হাতিতে বরযাত্রার এ দৃশ্য দেখেন। মোতালেব আরো জানান, দাদা মারা গেছেন। দাদার শখ পূরণ করতেই তিনি হাতিতে চড়ে বিয়ে করলেন।

এ ব্যাপারে উল­াপাড়া সদর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সালেক জানান, হাতিতে করে তার ইউনিয়নে মোতালেব হোসেন বিয়ে করতে এলে সেখানে বেশ আনন্দঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। অনেক নারী-পুরুষ বর যাত্রী আসার দৃশ্যটি উপভোগ করেন। মোতালেব হাতি করে বরবেশে যখন কনের বাড়িতে নিকটে পৌছে তখন কনেও লুকিয়ে থেকে বরকে দেখেছেন আর মুচকী  হাসেছেন। এ দৃশ্য দেখে কনের সখীরা  হাসি ঠাট্টায় মেতেছিল।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর
২০২০© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ*
ডিজাইন - রায়তা-হোস্ট সহযোগিতায় : SmartiTHost
smartit-ddnnewsbd